fbpx
September 22, 2020

Ruposhi Bangla TV

Nation's First IPTV

অনলাইনে মেয়েদের উত্যক্ত করা একটি ইন্টারনেট বাহিত ব্যাধি

হুমায়ুন আহমেদ সৃজন: বর্তমান বিশ্বে সকল উন্নয়নকাজে পুরুষের পাশাপাশি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখে চলেছেন নারীরা। শুনতে অবাক লাগলেও বর্তমান প্রেক্ষাপটে বাস্তবতা হলো কর্মক্ষেত্র থেকে শুরু করে প্রায় প্রতিটি ক্ষেত্রেই নারীদের বিভিন্ন সময়ে নির্যাতনের শিকার হতে হয়, বিভিন্নভাবে হয়রানি ও প্রতারণার শিকার হতে হয় নারীদের।
ණ☛এই হার অফলাইনে যতোটা না বেশি তার চেয়ে অনলাইনে অনেক বেশি দৃশ্যমান হয়ে উঠেছে যা খুবই অাশংকাজনক। তথ্যপ্রযুক্তির ক্রমবর্ধমান বিকাশের এই যুগে অনলাইনে বিভিন্ন বয়সের মেয়েদের উত্যক্তের পরিমান হু হু করে বেড়ে চলেছে যা নারীর উন্নয়ন ও বিকাশের ক্ষেত্রে মারাত্মক অন্তরায় ও প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে। বিগত কয়েক বছরে বিশ্বায়নের সাথে তাল মিলিয়ে বাংলাদেশেও অনলাইনে সুদূরপ্রসারী উন্নয়ন সাধিত হয়েছে।
ණ☛পুরুষের পাশাপাশি নারীরাও ইন্টারনেট ব্যবহারে দক্ষতার পরিচয় দিয়ে যাচ্ছেন, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ, ইন্সটাগ্রাম, টুইটার, ব্লগসহ অনলাইনের সব জগতেই বাংলাদেশী নারীদের ব্যাপক সম্পৃক্ততা লক্ষনীয় যা অামাদের জন্য খুবই ইতিবাচক।
ණ☛দুঃখজনক হলেও সত্যি যে বর্তমানে বাংলাদেশে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কতিপয় সাইবার দুর্বৃত্তদের হাতে বিভিন্ন বয়সী মেয়েদের উত্যক্তের শিকার হতে হচ্ছে, অথচ ব্যাপক নিগ্রহ ও নির্যাতনের শিকার হয়েও লোকলজ্জা বা সম্মানের ভয়ে অনেকক্ষেত্রেই মেয়েরা এসব বিষয়ে নিরব থাকছেন। যদিও বাংলাদেশের প্রচলিত অাইনে সাইবার অপরাধের জন্য দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির বিধান রয়েছে।
ණ☛অভিযোগের ভিত্তিতে বিটিঅারসি ও প্রশাসন অনলাইনে মেয়েদের উত্যক্তকারীদের সনাক্ত করে অাইনের মাধ্যমে উপযুক্ত শাস্তি নিশ্চিতে কাজ করে যাচ্ছে। অনলাইনে মেয়েদের যাতে উত্যক্তের শিকার না হতে হয় সেজন্য অামাদের সকলের সম্মিলিত প্রতিরোধ, প্রতিবাদ করা উচিত ও এই বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টি করতে সকলের সম্মিলিতভাবে এগিয়ে অাসা উচিত।
ණ☛ ক্যাসপারস্কি বাংলাদেশ এর অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে গত বছর এই শিরোনামে একটি সচেতনতামূলক পোস্ট শেয়ার করা হয়েছিল, বর্তমান প্রেক্ষাপট বিবেচনায় এই বিষয়ে পুনরায় লিখতে হচ্ছে। বাংলাদেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতি অক্ষুণ্ণ রাখতে অফলাইনের পাশাপাশি অনলাইনে পুরুষের সাথে নারীরা যাতে সমান তালে এগিয়ে যেতে পারে সে লক্ষে অামাদের সকলের কাজ করা উচিত।
লেখকঃ হুমায়ুন আহমেদ সৃজন,
সংবাদকর্মী, অনলাইন ও সোশ্যাল অ্যাক্টিভিস্ট।
ই-মেইলঃ nirobota4humayun@gmail.com
সংযুক্তি: লেখাটি দু’বছর আগে বিভিন্ন গনমাধ্যমে প্রকাশিত!
আর এন/এইচ- #3

Follow me on Twitter

%d bloggers like this: